খুলনায় লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা

60

খুলনায় লকডাউনের পরও প্রতিদিন লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় করানোর উপসর্গ নিয়ে খুলনায় ৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। নতুন আক্রান্তের সংখ্যা সর্বোচ্চ ১৩৩ জন এবং সর্বমোট আক্রান্তের সংখ্যা ৮০২ জন।

খুলনা মেডিকেলের তথ্য মতে, গত ২৪ ঘণ্টায় খুলনায় করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া ৬ জন হলেন- খালিশপুরের জরিনা বেগম (৬০), রূপসার মোহাম্মদ আলী (৬০), যশোর জেলার অভয়নগরের রুনা বেগম (৩৫), নড়াইল জেলার কালিয়া উপজেলার কার্তিক (৪০), খুলনা সদর থানার জামশেদ আলম (৬০) ও সোনাডাঙ্গার নাসিম আহমেদ (৬০)। এ নিয়ে খুলনায় করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেলেন ৫৫ জন।
খুলনা মেডিকেল কলেজের উপাধ্যক্ষ ডাক্তার মেহেদী নেওয়াজ জানান, খুলনায় প্রতিদিনই করোনা রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। বাড়ছে মৃত্যুর সংখ্যাও। এখনই সচেতন না হলে ভয়াবহ রূপ নেবে।

সিভিল সার্জন সুজাত আহমেদ বলেন, বর্তমানে করোনা পরিস্থিতি ভয়ঙ্কর আকার ধারণ করেছে। এখন সংক্রমণ রোধে কঠোর লকডাউন ছাড়া আর কোনো বিকল্প পথ নেই। খুলনাকে করোনার ছোবল থেকে বাঁচাতে ২১ দিনের কঠোর লকডাউন করার জন্য করোনা প্রতিরোধ কমিটির কাছে সুপারিশ করা হবে। কঠোরভাবে লকডাউন করা না হলে প্রতিদিনই বাড়তে থাকবে করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা।

খুলনা মেডিকেলের আইসোলেশন ওয়ার্ডে উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েই চলছে। সেইসঙ্গে অভিযোগ উঠেছে সাধারণ রোগীরা যেমন চিকিৎসা পাচ্ছে না, তেমনি করোনা আক্রান্ত সন্দেহে ভর্তি হওয়া রোগীরাও সঠিক চিকিৎসা কিংবা জীবন রক্ষায় ব্যবহৃত সরঞ্জামাদি পাচ্ছে না। এমনকি মারা যাওয়া কেউ আদৌ করোনা আক্রান্ত ছিলেন কিনা জানতে সময় লাগছে দিনের পর দিন, এমনকি সপ্তাহ পর্যন্ত। খুমেক হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে চিকিৎসক স্বল্পতাসহ সরঞ্জামাদির ব্যাপক ঘাটতি রয়েছে বলে জানা গেছে। ।

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন