ভারতে অপহরণ হওয়া ২১ শিশুকে উদ্ধার করলো পুলিশ

ভারতে লকডাউনের মধ্যে বিহার থেকে অপহরণ হওয়া ২১ শিশুকে উদ্ধার করেছে কলকাতা পুলিশ। একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার সঙ্গে যৌথভাবে অভিযান চালিয়ে সোমবার (০৭ সেপ্টেম্বার) ভোরবেলা বিহার থেকে আসা একটি বাস থেকে ওই ২১ শিশুকে উদ্ধার করে ময়দান থানার পুলিশ। সেসময়ে তিন পাচারকারীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, বিহার থেকে এই শিশুদের অপহরণ করা হয়েছে। কলকাতা থেকে এদের মুম্বাই পাচার করার পরিকল্পনা করা হয়েছিলো। এরপর সেখান থেকে অনেক শিশুকে পশ্চিম এশিয়ার বিভিন্ন দেশে পাচার করে দেয়া হয়।

এদের মূলত ‘বন্ডেড লেবার’ বা বিনা পারিশ্রমিকে বিভিন্ন কারখানা এবং বাগিচায় কাজ করানো হয়। এসব শিশু পাচারের পেছনে বড় কোনো চক্র কাজ করছে বলে দাবি কলকাতা পুলিশের তদন্তকারীদের।

পুলিশের এক সূত্রে জানা গেছে, একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার কাছ থেকে পাওয়া খবরের ভিত্তিতে সোমবার সকালে বাবুঘাটে বিহার থেকে আসা একটি বাসে তল্লাশি চালানো হয়। বাসে থাকা ওই শিশুদের সঙ্গে কোনো অভিভাবক ছিলোনা। ওই ২১ জন শিশু ছাড়াও আরো ১২ বা ১৫ জন তরুণ ছিলো ওই বাসে।

প্রাথমিক ভাবে পুলিশ জানতে পেরেছে, ওই তরুণদের হাওড়ার কারখানায় কাজের জন্য নিয়ে আসা হয়েছে। আইন অনুযায়ী পুলিশ তরুণদের ছেড়ে দিলেও বাকি ২১ জন শিশুকে উদ্ধার করে। তাদের সঙ্গে থাকা দালালদের গ্রেফতার করা হয়েছে। ওই দালালদের নাম, মহম্মদ চাঁদ, মহম্মদ আয়সান ও মহম্মদ আফজল। এই শিশুরা প্রত্যেকেই বিহারের সমস্তিপুরের বাসিন্দা। সবার বয়স ১২ থেকে ১৫ বছরের মধ্যে। এই তিনজনের সূত্র ধরে মূল চক্রকে খোঁজার চেষ্টা করছে পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে আরো জানা গেছে, এসব শিশুদের পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করা হচ্ছে। আদালতে পেশ করে তাদের সবাইকে অবিভাবকদের হাতে তুলে দেয়া হবে।

উল্লেখ্য, বিহার ও ঝাড়খণ্ড থেকে শিশুদের শ্রমিক হিসেবে পাচারের ঘটনা প্রায়ই ঘটে থাকে। ঝাড়খণ্ডে এ রকম একটি পাচার চক্রের বিরুদ্ধে তদন্ত করছে জাতীয় তদন্তকারী সংস্থা এনআইএ। সূত্র-আনন্দবাজার।

 

নিউজটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন ও লাইক দিন

শেয়ার করুন ও লাইক দিন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

%d bloggers like this: