শেষ বিদায়ে পুলিশ ছাড়া যেন কেউ থাকছে না পাশে

করোনার উপসর্গ নি‌য়ে রাজবাড়ি পাংশা উপ‌জেলার বাহাদুরপুর সেনগ্রা‌মের মৃত ট্রাকচালক রুহুল আমিন শেখের (৩২) জানাজা ট‌র্চের আলো‌তে পড়া‌নোর ব্যবস্থা ক‌রে‌ছে‌ন পু‌লিশ। পুলিশই শেষ বিদায়ের একমাত্র ভরসা হয়ে দাঁড়িয়েছে।

‌সোমবার (৬ এ‌প্রিল) রাত সা‌ড়ে ১০টার দি‌কে স্থানীয় ইউ‌পি চেয়ারম্যান মোঃ হুমায়ুন ক‌বির শা‌কিলসহ ৫ জন এবং অতি‌রিক্ত পু‌লিশ সুপার (পাংশা সার্কেল) লাবীব আব্দুল্লাহ ও পাংশা থানার ওসি আহসান উল্লাহসহ কয়েকজন পুলিশ সদস্য এ জানাজায় অংশ নেয়।

পরবর্তী‌তে জানাজা শে‌ষে ওই ব্যক্তির ধর্মীয় রী‌তি অনুযায়ী সেনগ্রাম কবরস্থা‌নে দাফন সম্পন্ন করা হয়। এ সময় ভ‌য়ে জানাজায় আসে‌নি স্থানীয়ারা। জানাযা নামাজ পড়ান সেনগ্রাম বাজার জা‌মে মস‌জি‌দের ইমাম আব্দুস সালাম।

এদিকে পু‌লি‌শের নিজ উদ্যো‌গে মৃত ব্যক্তির জানাজা ও দাফ‌নের কিছু ছ‌বি সামা‌জিক যোগা‌যোগমাধমে ভাইরাল হ‌য়। পু‌লি‌শের এমন মহ‌তি উদ্দ্যো‌গে ধন্যবাদ জা‌নি‌য়ে‌ছেন সর্বস্ত‌রের মানুষ এবং বল‌ছেন দে‌শের এর দু‌র্যোগকালীন সম‌য়ে পু‌লিশই জন‌গণের পা‌শে আছে।

ক‌রোনাভাইরাস স‌ন্দে‌হে মৃত ব্যক্তির জানাজা নামাজ পড়া‌নোর ব্যবস্থা ও কবর দেওয়ার মাধ্যমেই তার দৃষ্টান্ত স্থাপন কর‌লেন। পু‌লিশ প্রকৃতই জনগণের বন্ধু।

এর আগে বিকা‌লে রুহুল আমিন ‌শেখ করোনাভাইরা‌সের উপসর্গ নি‌য়ে মারা যান। এ ঘটনায় উপ‌জেলা প্রশাসন ও পু‌লিশ সেনগ্রাম ও বাজার লকডাউন ঘোষণা ক‌রেন এবং স্বাস্থ্য বিভাগ মৃ‌তের শরী‌রের নমুনা সংগ্রহ ক‌রে ঢাকায় পা‌ঠি‌য়ে‌ছেন ব‌লে জানান।

মৃত রুহুল আমিন শেখ সেনগ্রাম এলাকার হাবিবুর রহমানের ছে‌লে। সে পেশায় একজন ট্রাকটালক।

স্থানীয় এলাকাবাসী সূত্রে জানা‌ গে‌ছে, রুহুল আমিন ঢাকার সাভা‌রে ড্রাম ট্রাক চালা‌তেন। ক‌য়েক‌দিন আগে সে পাবনায় তার শশুর বাড়ি‌তে বেড়া‌তে যান। ‌সেখান থে‌কে জ্বর ও বি‌ভিন্ন আলামত নি‌য়ে গত রবিবার তার গ্রা‌মের বাড়িতে আসেন। এরপর তার অবস্থার অব‌নতি হ‌লে স্থানীয় পল্লী চি‌কিৎস‌কের কা‌ছে চি‌কিৎসা নেন। পরবর্তী‌তে তার অবস্থার আরো অবন‌তি হ‌লে গতকাল সোমবার বিকা‌লে তি‌নি মারা যান।

রাজবাড়ীর সি‌ভিল সার্জন ডাঃ মোঃ নুরুল ইসলাম জানান, ‌‌রবিবার বিকা‌লে ক‌রোনা ভাইরা‌সের উপসর্গ নি‌য়ে ‌সেনগ্রাম এলাকায় এক ব্যক্তির মৃত্যু হ‌য়ে‌ছে। তার নমুনা ঢাকায় পাঠা‌নো হ‌য়ে‌ছে এবং ওই ব্যক্তির আশে পা‌শের বাড়ীসহ গ্রাম ও বাজার লকডাউ‌ন করা হ‌য়ে‌ছে।

পাংশা থানার ও‌সি মোঃ আহসান উল্লাহ জানান, স্থানীয়রা কেউ ভয়ে ক‌রোনা স‌ন্দে‌হে মৃত ব্যক্তির জানাজায় এগি‌য়ে আসে নাই। ফ‌লে পু‌লিশ রা‌তে স্থানীয় ইউ‌পি চেয়ারম্যানসহ ৫ জন এবং অতি‌রিক্ত পু‌লিশ সুপারসহ (পাংশা সা‌র্কেল) থানার পু‌লিশ সদস্য‌দের নি‌য়ে ধর্মীয় বিধান মে‌নে যথাযথ নিয়‌মে ওই ব্যক্তির জানাজা নামাজ পড়া‌নোর ব্যবস্থা ও দাফন সম্পন্ন ক‌রে।

অতিরিক্ত ডিআইজি জিহাদুল কবিরের ফেসবুক থেকে

সূত্র: কালের কণ্ঠ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *